কৌতুক ভার্সেস হয়রানী

আমেরিকান কমেডিয়ান লুইস সি কে বেশ কিছুদিন আগে পেডোফাইলদের নিয়ে একটা জোক করেছিলো যা নিয়ে প্রচন্ড সমালোচনা হয়েছিলো। কারো কারো মতে জোকটা খুবই ইনএপ্রোপিয়েট ছিল, শিশু নির্যাতন নিয়ে জোক করা উচিত না কারন এতে সিরিয়াস ব্যাপারটাকে হালকা করা হয়, ভিক্টিমদের অসম্মান করা হয়। আবার কারো কারো মতে কমেডির ক্ষেত্রে কোন লিমিটেশন থাকা উচিত না। যার যা ইচ্ছা সে তা নিয়ে জোক করতে পারে।

ব্রিটিশ কমেডিয়ান রিকি জার্ভেইসের মতে- জোকের ক্ষেত্রে বিষয়ের চেয়ে কমেডিয়ানের উদ্দেশ্য বা নিয়ত বেশি ম্যাটার করে। যে কোন বিষয় নিয়ে জোক করা যাবে কিন্তু দেখতে হবে কোন উদ্দেশ্য বা নিয়ত নিয়ে জোকটা করা হচ্ছে। যদি কৌতুকের উদ্দেশ্য হয় শুধুমাত্র বিনোদন দেয়া বা হাসি ঠাট্টার মাধ্যমে কোন মেসেজ দেয়া তাহলে সে জোকের বিষয় কোন ম্যাটার করে না। কিন্তু কৌতুক বলার উদ্দেশ্য যদি হয় কাউকে বিব্রত, আঘাত বা লজ্জা দেয়া তবে সে জোকটা অবশ্যই ইনএপ্রোপিয়েট। তবে কিভাবে বোঝা যাবে যে কমেডিয়ানের উদ্দেশ্য ভালো না খারাপ? এটা নির্ভর করে কৌতুকের ডেলিভারি ও কমেডিয়ানের বডি ল্যাঙ্গুয়েজের উপর।

প্রথম কথা, সাজু খাদেম যে জোকটা করেছে সেটা খুবই ফালতু একটা জোক। যৌনতা সম্পর্কে নতুন নতুন জ্ঞান পাওয়া স্কুলের বাচ্চারা এই টাইপের জোক করে। দ্বিতীয়ত, এই সেইম জোকটা যদি সে তার ফ্রেন্ড সার্কেলে করতো তবে ব্যাপারটা মেনে নেয়া যেত। এরকম ভালগার জোক আমরা আমাদের বন্ধুদের সাথে কম করি না। কিন্তু সাজু খাদেম কৌতুকটা করেছে ন্যাশনাল টেলিভিশনে চারজন অপরিচিত বা স্বল্পপরিচিত নারীর সামনে যারা তার ফালতু কৌতুক শুনে প্রচন্ড বিব্রতবোধ করেছে। আর তার কথাবার্তার ধরন এবং মুচকি হাসি বলে দিচ্ছিলো যে তার উদ্দেশ্যই ছিল উপস্থিত নারীদের লজ্জা দিয়ে পার্ভার্ট পুরুষদের হাসি আদায় করা। সো এটাকে হার্মলেস বলা কোনভাবেই যাবে না।

আমি একস্টেপ বাড়িয়ে আরো বলবো পুরো ব্যাপারটা এক ধরনের যৌন হয়রানি ছিল। রাস্তায় পুরুষরা যখন নির্লজ্জভাবে বুকের দিকে তাকিয়ে থাকে তখন যেমন গা ঘিনঘিন করে সাজু খাদেমের কৌতুক শেষের হাসি দেখে সেরকম অনুভূতি হয়েছে। সত্যি বলতে, প্রত্যক্ষ হয়রানীর চেয়ে এরকম মানসিক হয়রানী আরো বেশি ক্ষতিকর। এটলিস্ট সামনাসামনি দুটো থাপ্পড় মেরে আসা যায়। কিন্তু সাজু খাদেমকে আস্তাকুঁড়ে ছুড়ে ফেলার বদলে তাকে আরো ডিফেন্ড করা হচ্ছে।

আমাদের মত কনজারভেটিভ সমাজে আরো রিস্কি, ‘অশালীন’, ভালগার কমেডি দরকার। কিন্তু এরকম লোক হাসানোর নামে যৌন নির্যাতনের দরকার নেই।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s